‘এই ক্যাম্পাস আমার, পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্ব আমার’ এই স্লোগান নিয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আন্তঃজেলা ও জাতীয় পর্যায়ে বিডি ক্লিন আয়োজন করেছে ‘ক্লিন ক্যাম্পাস এন্ড গ্রীন ক্যাম্পাস’ শিরোনামে পরিচ্ছন্ন ও সবুজ ক্যাম্পাস গড়ার প্রতিযোগিতা।

রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের প্রধানগণ ৪ জন শিক্ষক প্রতিনিধির অধীনে ৯৬ জন শিক্ষার্থী (ক্যাম্পাস প্রধান: ১ + শিক্ষক প্রতিনিধি: ৪ + শিক্ষার্থী: ৯৬ = ১০১ জন) অংশগ্রহনের নিশ্চয়তা প্রদানের মাধ্যমে বিডি ক্লিন কর্তৃক প্রদত্ত ফর্ম পূরণ করে (ফি বিহীন) রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশন করার জন্য আপনার ক্যাম্পাসের নাম, যোগাযোগের ঠিকানা ও ক্যাম্পাস কর্তৃপক্ষের একজনের নাম সহ ফোন নম্বর লিখে BD Clean পেইজে ইনবক্স করুন অথবা info@bdclean.org এই ঠিকানায় ই-মেইল করুন। আপনার পাঠানো তথ্যের ভিত্তিতে পরবর্তী ২ দিনের মধ্যেই রেজিস্ট্রেশন ফর্ম সহ আপনার ক্যাম্পাসে পৌছে যাবে বিডি ক্লিন এর একজন প্রতিনিধি।

প্রতিযোগিতার সময়কাল

২ মাস।
২৪ মার্চ ২০১৯ থেকে ২৪ মে ২০১৯ পর্যন্ত।

রেজিস্ট্রেশন শুরু ও শেষ

১ মার্চ ২০১৯ থেকে ২০ মার্চ ২০১৯ পর্যন্ত

সেরা ক্যাম্পাস নির্ধারণে পূর্ণমান: (মোট পূর্ণমান ১২০)

নিম্নোক্ত ৮ টি বিষয়ের উপরে ভিত্তি করে প্রতিযোগিতার পূর্ণমান বন্টন করা হবে: (বিষয়গুলোর উপর ক্লিক করে বিস্তারিত জেনে নিন)

ময়লামুক্ত পরিচ্ছন্ন ক্যাম্পাস (২০)

সীমানা প্রাচীর এর বহিরঙ্গন ও প্রাচীরের সাথে সংযুক্ত ফুটপাথ (যদি থাকে) সহ প্রাচীর অভ্যন্তরে সমগ্র এলাকা ক্যাম্পাস হিসেবে গণ্য হবে। যা সার্বক্ষণিকভাবে পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

ডাস্টবিন স্থাপন (১০)

উম্মুক্ত স্থান, রাস্তা ও ভবন অভ্যন্তরস্থ বারান্দা বা কক্ষ অনুযায়ী বিডি ক্লিন প্রদত্ত ৩টি ডিজাইন এর ডাস্টবিন স্থাপন এবং এর যথোপযুক্ত ব্যবহার নিশ্চিতকরণ সহ প্রতিদিন অন্তত দুবার ডাস্টবিনগুলো থেকে ময়লা অপসারণ করতে হবে। আয়তনে ৪০০ বর্গফুটের নীচে প্রতিটি কক্ষে ২টি ও ৪০০ বর্গফুটের বেশী হলে ৪টি ঢাকনাযুক্ত ডাস্টবিন, করিডোর বা বারান্দায় প্রতি ৪০ ফুট অন্তর ১টি করে এবং রাস্তা বা উম্মুক্ত স্থানে প্রতি ৪০ ফুট অন্তর ১টি করে (বিডি ক্লিন কর্তৃক নির্ধারিত) চার কোণাকৃতি ডাস্টবিন স্থাপন করতে হবে। ডাস্টবিনের গায়ে অবশ্যই বিডি ক্লিন, ক্লিন ক্যাম্পাস এন্ড গ্রীন ক্যাম্পাসের নির্ধারিত স্টিকার প্রিন্ট করে এটে দিতে হবে।

করিডোর, খোলা মাঠ ও রাস্তায় স্থাপনযোগ্য ডাস্টবিন

করিডোর, খোলা মাঠ ও রাস্তায় স্থাপনযোগ্য ডাস্টবিন

শ্রেণী কক্ষ বা অন্যান্য কক্ষে স্থাপনযোগ্য ডাস্টবিন
শ্রেণী কক্ষ বা অন্যান্য কক্ষে স্থাপনযোগ্য ডাস্টবিন
সবুজায়ন (১০)

ক্যাম্পাস আয়তনের ন্যূনতম ১৫% স্থানে গাছ লাগিয়ে সবুজায়নের মাধ্যমে সুন্দর ও মনোরম পরিবেশ তৈরি করতে হবে। এক্ষেত্রে ফুল, ফল, ঔষধি গাছ বেশী গ্রহণযোগ্য হবে। এছাড়াও নয়নাভিরাম সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলতে মেহেগণি, ইউক্যালিপটাস ও একাশিয়া ব্যতীত সকল গাছ গ্রহণযোগ্য হবে। উল্লেখ্য সবুজায়নের ক্ষেত্রে ক্যাম্পাস আঙ্গিনার মাটিতে অথবা টবে উভয়ই গ্রহনযোগ্য হবে।

ক্যাম্পাসের বাহ্যিক রূপ (২০)

ক্যাম্পাসের সীমানা প্রাচীরের বহিরঙ্গনে বা ক্যাম্পাস অভ্যন্তরের ফাঁকা দেয়ালে শিক্ষনীয় বাণী অথবা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমৃদ্ধ চিত্র অথবা লোকজ চিত্র অথবা বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াবলী বা ঐতিহ্য বহন করে এমন চিত্রাঙ্কন করতে হবে। সীমানা প্রাচীর বা ভবনের দেয়াল ভগ্ন থাকলে তা পূনঃর্নিমাণ ও চিত্রাঙ্কনের মাধ্যমে ক্যাম্পাসের বাহ্যিকরূপ পরিপাটি ও দৃষ্টিনন্দন করতে হবে। এছাড়াও ক্যাম্পাসের মূল গেট অথবা ক্যাম্পাস অভ্যন্তরে সুবিধাজনক স্থানে বিডি ক্লিন কর্তৃক প্রদত্ত ডিজাইন এর মাধ্যমে “ক্লিন ক্যাম্পাস এন্ড গ্রীন ক্যাম্পাস” বিষয়ক দুটি নিদর্শন ফলক স্থাপন করতে হবে।

স্বাস্থ্যসম্মত খাবার ও আধুনিক স্যানিটারি ব্যবস্থা (১৫)

বিশুদ্ধ সুপেয় পানির নলকূপের চারপাশে শ্যাওলা বা পানি জমে থাকা বন্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহনসহ সকল প্রকার ড্রেন ও স্যানিটারী ব্যবস্থা সাধ্য অনুযায়ী আধুনিকীকরণ করতে হবে। ওয়াশব্লক এবং ড্রেন পরিচ্ছন্ন ও জীবানুমুক্ত রাখার পরিপূর্ণ ব্যবস্থা গ্রহন সহ সুস্বাস্থ্য রক্ষায় মশকনিধন অভিযান অব্যহত রাখতে হবে। এছাড়াও ক্যাম্পাস অভ্যন্তরে ক্যান্টিন বা খাবার দোকান থাকলে তাতে স্বাস্থ্যসম্মত খাবার এবং বিশুদ্ধ খাবার পানির সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে।

নিজ ক্যাম্পাসে উপস্থিতি, শৃঙ্খলা ও শপথ (১৫)

ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণ সার্বক্ষণিকভাবে পরিচ্ছন্ন রাখার পাশাপাশি রেজিস্ট্রেশনকৃত পুর্ণ টিমের উপস্থিতি নিশ্চিতকরণ সহ প্রতি সপ্তাহে একবার (দুমাসে ৮টি) পরিচ্ছন্ন অভিযানের আয়োজনের মাধ্যমে সকলকে সচেতন করতে হবে। সাপ্তাহিক এই পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরুর আগে ক্যাম্পাসের সকল ছাত্রছাত্রীর অংশগ্রহনে সুশৃঙ্খলতা বজায় রেখে পরিচ্ছন্নতার শপথ পাঠ অনুষ্ঠান আয়োজন করতে হবে। উল্লেখ্য ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণে শহিদ মিনার থাকলে তার মর্যাদাবোধ রক্ষায় সবসময় সম্মান প্রদর্শন করে চলা সুশৃঙ্খলতার আওতায় পরবে।

ফেসবুক প্রচারণা (১০)

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনকৃত টিমের সদস্যগণ, ক্যাম্পাসে বিদ্যমান সকল শিক্ষার্থী-শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীগণের ফেসবুক টাইমলাইনে পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক কার্যক্রমের ছবির সাথে বিডি ক্লিন কর্তৃক প্রদত্ত ফ্রেম যুক্ত করে আপলোড করা সহ সচেতনতামূলক লেখার সাথে ৩টি হ্যাশট্যাগ (#আপনার_ক্যাম্পাসের_নাম, #বিডি_ক্লিন_ক্লিন_ক্যাম্পাস_গ্রীন_ক্যাম্পাস, #এই_ক্যাম্পাস_আমার_পরিচ্ছন্ন_রাখার_দায়িত্ব_আমার) জুড়ে স্ট্যাটাস প্রদান করতে হবে। বাধ্যতামূলক ১৬টি ই-কার্ড ও ৬টি ভিডিও পোষ্ট করা সহ সর্বোচ্চ সংখ্যক পোষ্ট দাতা ক্যাম্পাস পাবে পরিপূর্ণ ১০ নম্বর। এভাবে প্রতিটি ক্যাম্পাস কর্তৃক প্রদত্ত হ্যাশট্যাগ যুক্ত সচেতনতামূলক ফেসবুক পোষ্টের সংখ্যার ক্রমানুযায়ী দ্বিতীয় সর্বোচ্চ, তৃতীয় সর্বোচ্চ ও চতুর্থ সর্বোচ্চ নম্বর প্রদান করা হবে।

পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিতি, শৃঙ্খলা ও শপথ (২০)

জেলা এবং জাতীয় পর্যায়ে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট টিমের উপস্থিতি, শপথ বাক্য পাঠ ও শৃঙ্খলা রক্ষায় থাকবে ২০ নম্বর। যা পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান চলাকালীন সময়ে বিচারক মন্ডলীগণ তাৎক্ষনিক ভাবে নম্বর প্রদান করে পূর্বে প্রাপ্ত নম্বরের সাথে যোগ করার মাধ্যমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান নির্ধারণ করবেন।

প্রতিযোগিতার শর্তাবলী

১. স্বায়ত্তশাসিত, সরকারী, আধা সরকারি, বা ব্যক্তিগত পর্যায়ের যে কোন প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় (বাংলা অথবা ইংলিশ মিডিয়াম) ক্যাম্পাস এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে যোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

২. ক্যাম্পাস প্রধান, ৪ জন শিক্ষক প্রতিনিধি ও ৯৬ জন ছাত্র-ছাত্রী সহ মোট ১০১ সদস্যের একটি টিম গঠন করে বিডি ক্লিন কর্তৃক প্রদত্ত রেজিস্ট্রেশন ফর্ম নির্ভুলভাবে পূরণের মাধ্যমেই কেবল এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করা যাবে।

৩. অসম্পূর্ণ ফর্ম কিংবা ভুল তথ্য প্রয়োগের প্রমাণ পেলে উক্ত ক্যাম্পাসের রেজিস্ট্রেশন বাতিল বলে গন্য হবে।

৪. কোনো জেলায় ন্যূনতম ১৫টি ক্যাম্পাসের অংশগ্রহন না থাকলে উক্ত জেলা এই প্রতিযোগিতার অন্তর্ভুক্ত হবে না।

৫. ডাস্টবিন স্থাপনের ক্ষেত্রে অবশ্যই বিডি ক্লিন প্রদত্ত নির্দেশিকা মেনে চলতে হবে। এর ব্যতিক্রম হলে উক্ত বিষয়ে কোন নম্বর প্রদান করা হবেনা।

৬. রেজিস্ট্রেশনকৃত প্রতিটি ক্যাম্পাসে প্রতি সপ্তাহে ১টি অথবা দুমাসে ৮টি পরিষ্কার অভিযান, ১০১ সদস্য বিশিষ্ট গ্রুপ ছবি সংরক্ষণ সহ ক্যাম্পাসের সকল ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহনে বিডি ক্লিন শপথ বাক্য পাঠ অনুষ্ঠান বাধ্যতামূলক।

৭. রেজিস্ট্রেশনকৃত প্রতিটি ক্যাম্পাসের জন্য বিডি ক্লিন কর্তৃক প্রদত্ত ১ জন করে রিপ্রেজেনটেটিভ থাকবেন। যিনি উক্ত ক্যাম্পাসে সাপ্তাহিক পরিষ্কার অভিযান পরিচালনা, গ্রুপ ছবি ও শপথ পাঠে নির্দেশিকা প্রদান করবেন।

৮. রেজিস্ট্রেশন এর সময়সীমা ০১ মার্চ ২০১৯ থেকে ২০ মার্চ ২০১৯ পর্যন্ত। উক্ত তারিখের এর পরবর্তী রেজিস্ট্রেশন কোনো ক্রমেই গ্রহনযোগ্য হবে না।

৯. দেশব্যাপী ২৪ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল ২০১৯ তারিখের মধ্যে সুবিধা অনুযায়ী তারিখে প্রতিটি জেলায় আলাদা আলাদাভাবে এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে। প্রতিটি জেলার জেলা স্কুল বা স্বনামধন্য ক্যাম্পাস অডিটোরিয়াম অথবা বিডি ক্লিন কর্তৃক নির্ধারিত স্থান উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভেন্যু বলে বিবেচিত হবে। উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রেজিস্ট্রেশনকৃত সকল ক্যাম্পাসের ক্যাম্পাস প্রধান ও ৪ জন শিক্ষক প্রতিনিধি সহ মোট ৫ সদস্য বিশিষ্ট টিমের অংশগ্রহন ব্যর্থ হলে বা অনুপস্থিত থাকলে উক্ত ক্যাম্পাসের রেজিষ্ট্রেশন বাতিল বলিয়া গণ্য হবে। এক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশনকৃত কোন ক্যাম্পাস উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভেন্যু হিসেবে নির্ধারিত হলে উক্ত ক্যাম্পাসের জন্য ১০১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণ টিম সহ সকল ছাত্রছাত্রীর অংশগ্রহন থাকতে হবে।

১০. দেশব্যাপী ১৪ জুন থেকে ২০ জুন ২০১৯ তারিখের মধ্যে সুবিধা অনুযায়ী তারিখে প্রতিটি জেলায় আলাদা আলাদাভাবে এই প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। এক্ষেত্রে প্রতিটি জেলার জেলা স্কুল বা স্বনামধন্য ক্যাম্পাসের মাঠ উক্ত অনুষ্ঠানের ভেন্যু বলে বিবেচিত হবে। উক্ত পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে রেজিস্ট্রেশনকৃত সকল ক্যাম্পাসের ক্যাম্পাস প্রধান, ৪ জন শিক্ষক প্রতিনিধি ও ক্যাম্পাসের নির্ধারিত ড্রেসকোডে ৯৬ জন ছাত্র-ছাত্রী সহ মোট ১০১ সদস্য বিশিষ্ট পুর্ণ টিমের অংশগ্রহনে ঘাটতি বা অনুপস্থিতি থাকলে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্ত হয়ে প্রথম স্থান অধিকার করলেও উক্ত ক্যাম্পাস পুরষ্কার প্রাপ্তিতে বিবেচ্য হবেনা। এক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থান অধিকারী ক্যাম্পাসই প্রথম স্থান অধিকারী বা ‘Best Clean & Green Campus of District’ খেতাবে ভূষিত বলে বিবেচিত হবে।

১১. জেলা পর্যায়ে প্রথম স্থান অধিকারী ক্যাম্পাসই কেবল জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনের জন্য মনোনীত হবে।

১২. ২৮ অথবা ২৯ জুন ২০১৯ তারিখে জাতীয় পর্যায়ে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের ভেন্যু হবে রাজধানী শহর ঢাকা। দিনব্যাপী আয়োজিত উক্ত অনুষ্ঠানে জাতীয় পর্যায়ে মনোনীত সকল ক্যাম্পাসের ক্যাম্পাস প্রধান, ৪ জন শিক্ষক প্রতিনিধি ও ক্যাম্পাসের নির্ধারিত ড্রেসকোডে ৯৬ জন ছাত্র-ছাত্রী সহ মোট ১০১ সদস্য বিশিষ্ট পুর্ণ টিমের অংশগ্রহনে ঘাটতি বা অনুপস্থিতি থাকলে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্ত হয়ে প্রথম স্থান অধিকার করলেও উক্ত ক্যাম্পাস পুরষ্কার প্রাপ্তিতে বিবেচ্য হবেনা। এক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থান অধিকারী ক্যাম্পাসই প্রথম স্থান অধিকারী বা ‘Best Clean & Green Campus of Bangladesh’ খেতাবে ভূষিত বলে বিবেচিত হবে।

[সংশোধনী ১৫ মে ২০১৯: নিয়মানুযায়ী প্রতিযোগিতার সময়কাল ছিল ২ মাস অর্থাৎ ২৪ মার্চ ২০১৯ থেকে ২৪ মে ২০১৯ তারিখ। 
কিন্তু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পবিত্র রমযান ও ঈদ-উল-ফিতরের সরকারি ছুটি ঘোষণার পর নিবন্ধনকৃত প্রায় সকল ক্যাম্পাস-ই সময় স্বল্পতায় প্রতিযোগিতায় বিদ্যমান বিষয়সমূহ পূরণ করতে সক্ষম হচ্ছেন না। যেহেতু বিডি ক্লিন ‘ক্লিন ক্যাম্পাস এন্ড গ্রীন ক্যাম্পাস’ প্রতিযোগিতাটি ক্যাম্পাসকে পরিচ্ছন্ন করার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের পরিচ্ছন্ন মানসিকতায় গড়ে তোলার একটি চর্চা, সেহেতু শিক্ষার্থীদের মধ্যে পরিচ্ছন্নতার চর্চা বাড়াতেই অধিকাংশ নিবন্ধিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অনুরোধক্রমে আমরা প্রতিযোগিতাটির সময়সীমা বৃদ্ধি করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যেহেতু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরকারী ছুটি ঘোষিত হবার তারিখ ৫ মে ২০১৯ তারিখ থেকে প্রতিযোগিতার শেষ সময় ২৪ মে ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত মোট ১৯ দিনের সময় সংকট তৈরী হয়েছে সেহেতু ঈদ পরবর্তী ছুটি শেষে ১৫ জুন থেকে ১৯ দিন বাড়িয়ে আগামী ০৫ জুলাই ২০১৯ তারিখ প্রতিযোগিতার শেষ সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। একই সাথে জেলা পর্যায়ের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের তারিখ ক্রমানুসারে বৃদ্ধি করে নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ জুলাই থেকে ২৪ জুলাই ২০১৯ তারিখ এবং জাতীয় পর্যায়ে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ৩১ জুলাই ২০১৯ তারিখ।]

১৩. জাতীয় পর্যায়ে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন কালে প্রতিটি ক্যাম্পাসের উপস্থিাত, শৃঙ্খলা রক্ষা ও মঞ্চ থেকে প্রাপ্ত ঘোষণা অনুযায়ী নির্দেশিকা অনুসরণে প্রবণতার ভিত্তিতে বিচারক মন্ডলিগণের তাৎক্ষণিকভাবে প্রদত্ত নম্বর প্রতিযোগিতা চলাকালীন কার্যক্রমে প্রাপ্ত নম্বরের সাথে যোগ করে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান নির্ধারণ করা হবে।

১৪. প্রতিযোগিতা চলাকালীন সময়ে ন্যুনতম অসদুপায় অবলম্বনের সামান্যতম প্রমাণ পেলে উক্ত ক্যম্পাসের রেজিস্ট্রেশন কোনপ্রকার কারণ দর্শানো ব্যতিরেকেই বাতিল বলে গণ্য হবে।

১৫. কোনরূপ কারণ দর্শানো ব্যতিরেকেই বিডি ক্লিন এই প্রতিযোগিতায় যে কোন ধরনের বিধি পরিবর্তন বা পরিবর্ধন করতে পারবে। এক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশনকৃত ক্যাম্পাসের কোনপ্রকার আপত্তি গ্রহনযোগ্য হবেনা।

জেলা পর্যায়ে সেরা নির্ধারণ ও পুরষ্কার

৭ সদস্য বিশিষ্ট বিচারক প্যানেল কর্তৃক প্রদত্ত নম্বর এর যোগফলেই নির্ধারিত হবে একটি জেলার সেরা পরিচ্ছন্ন ও সবুজ ক্যাম্পাস। যা ‘Best Clean & Green Campus of District’ খেতাবে ভূষিত হবে। পুরষ্কার হিসেবে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনকৃত সকল ক্যাম্পাসের জন্য থাকবে পার্টিসিপেশন সার্টিফিকেট। এছাড়াও প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী ক্যাম্পাসকে আলাদা আলাদাভাবে নির্ধারিত সংখ্যার ল্যাপটপ অথবা শিক্ষা উপকরণ সহ সম্মাননা স্মারক এবং টিমের সকল সদস্যকে আলাদা আলাদা পার্টিসিপেশন সার্টিফিকেট প্রদানের মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হবে। তাছাড়াও প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী প্রতিটি ক্যাম্পাসের সুবিধাজনক স্থানে উক্ত ক্যাম্পাস কর্তৃক অর্জিত সম্মাননা স্বারকের আদলে স্থাপন করে দেওয়া হবে নিদর্শন স্মারক।

জাতীয় পর্যায়ে সেরা নির্ধারণ ও পুরষ্কার

জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় শুধুমাত্র প্রথম স্থান অধিকারী ক্যাম্পাস জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগী হিসেবে মনোনীত হবে। জেলা পর্যায়ে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের পরে ৩ সদস্য বিশিষ্ট অপর আরেকটি বিচারক প্যানেল জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকারী ক্যাম্পাস নতুন করে পরিদর্শন পূর্বক পুনরায় নম্বর প্রদান করবেন। জাতীয় পর্যায়ে প্রাপ্ত নম্বরের সাথে জেলা পর্যায়ে প্রাপ্ত নম্বরের পয়েন্ট (প্রতি ১০০ নম্বরে ১ পয়েন্ট) যোগ করে নির্ধারণ করা হবে দেশ সেরা পরিচ্ছন্ন ও সবুজ ক্যাম্পাস। যা ‘Best Clean & Green Campus of Bangladesh’ খেতাবে ভূষিত হবে। পুরষ্কার হিসেবে জাতীয় পর্যায়ে অংশগ্রহনকৃত সকল ক্যাম্পাসের জন্য থাকবে পার্টিসিপেশন সার্টিফিকেট ও সম্মাননা স্মারক এবং ১০১ সদস্য বিশিষ্ট প্রতিটি টিমের প্রত্যেক সদস্যের জন্য ১টি করে বিডি ক্লিন টি-শার্ট। এছাড়াও প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী ক্যাম্পাসকে আলাদা আলাদাভাবে নির্ধারিত সংখ্যার কম্পিউটার সম্বলিত একটি করে কম্পিউটার ল্যাব সহ গোল্ড, ব্রোঞ্জ ও সিলভার সম্মাননা স্বারক এবং টিমের সকল সদস্যকে আলাদা আলাদা পার্টিসিপেশন সার্টিফিকেট ও ৩ ক্যাম্পাসের ১৫ জন শিক্ষক প্রতিনিধিকে মেডেল প্রদানের মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হবে। তাছাড়াও প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী প্রতিটি ক্যাম্পাসের সুবিধাজনক স্থানে উক্ত ক্যাম্পাস কর্তৃক অর্জিত সম্মাননা স্বারকের আদলে স্থাপন করে দেওয়া হবে নিদর্শন স্মারক।